15th, August, 2022, 1:47 am

সেইফ টমি মিয়ার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা

নিজস্ব প্রতিনিধি: টমি মিয়া’স হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট ইন্সটিটিউটের চেয়ারম্যান ব্রিটিশ-বাংলাদেশি সেইফ (রন্ধন শিল্পী) টমি মিয়া ওরফে মো. আজমান মিয়াসহ দুইজনের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। রোববার (২৬ জুন) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম শুভ্রা চক্রবর্তীর আদালতে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ম্যানেজিং উপদেষ্টা এস. এম আলী জাকের মামলাটি দায়ের করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে আসামিদের আদালতে হাজির হতে সমন জারি করেছেন। মামলার অন্য আসামি হলেন প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি) তাজুল ইসলাম।

বাদী আলী জাকেরে পক্ষের আইনজীবী মো. রুবেল মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, টাকা আত্মসাতের অভিযোগে টমি মিয়ার  বিরুদ্ধে আদালত সমন জারি করেন। অভিযোগ থেকে জানা যায়, আলী জাকের ২০২১ সালের ২৯ ডিসেম্বর টমি মিয়া’স হসপিটালিটি ম্য্যানেজমেন্ট ইন্সটিটিউটে চুক্তিভিত্তিক মার্কেটিং উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন। সেখানে চার মাস কাজও করেন। চুক্তি অনুযায়ী ৪ লাখ ২৮ হাজার টাকা পাওনা হলেও আসামিরা কোনো টাকা পরিশোধ করেননি।

অভিযোগে আর বলা হয়, আসামিরা বাদীর সরল বিশ্বাসকে ব্যবহার করে তাহার পাওনা টাকা আত্মসাৎ করার লক্ষে হুমকি প্রদান করে যা দণ্ডবিধির ৪২০/৪০৬/৫০৬ ধারায় বিচার যোগ্য অপরাধ করেছে। মামলার ধারা গুলি হলো ৪২০,৪০৬ ও ৫০৬। প্রতিষ্ঠানটির সাবেক ম্যানেজিং উপদেষ্টা এস. এম আলী জাকের বলেন, গত ২৯ মার্চ টাকা চাইলে আসামিরা তার প্রাণনাশের হুমকি দেন। টাকা পরিশোধ করতে গত ১ জুন আসামিদের লিগ্যাল নোটিশ পাঠান আলী জাকের। এক সপ্তাহের মধ্যে আসামিরা টাকা পরিশোধ করার কথা থাকলেও তারা তা করেনি। উল্টো টাকা চাইলে মিথ্যা মামলা ও ভাড়াটে গুণ্ডা দিয়ে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেন।

ভুক্তভোগী বলেন, আমি চলতি বছরের ২৯ মার্চ বনানী থানায় মো. তাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি (নাম্বার ১৭৬৪)। পরবর্তীতে ঢাকার নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতেও তার বিরুদ্ধে ফৌঃ কাঃ বিঃ মামলা করেছি, (মামলা নাম্বার ৮৪/২০২২)। বনানী থানা এসাই শামসুর রহমান বলেন, মার্চ মাসে ২৯ তারিখ একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে। শুনেছি ভুক্তভোগী মামলা করবেন।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page