30th, January, 2023, 7:53 pm

লোকসানের অঙ্ক মাথায় নিয়ে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ শুরু

বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়া জেলার বিভিন্ন স্থানে লোকসানের অঙ্ক মাথায় নিয়ে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ শুরু করেছে জেলার কৃষক কৃষানিরা। চলতি মৌসুমে আমন ধানের বাজার মূল্য তুলনামূলক কম থাকায় কৃষকদের এবার লোকসানের অঙ্ক গুণতে হয়েছে অনেক। স্থান ও প্রকার ভেদে এখনো জেলার বিভিন্ন স্থানে ৭শত টাক থেকে ৭শত ৫০ টাকা মণ দরে ধান বিক্রয় হচ্ছে। কৃষকদের ধানের উৎপাদন খরচ বৃদ্ধি পেলেও ধানের মূল্য তেমন বৃদ্ধি পায়নি। এ বিষয়ে জানা যায় ধানের আশানুরুপ মূল্য না পাওয়ার পরেও চিরায়িত নিয়মে তবুও কৃষকরা ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদে পিচপা হয়নি। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে , ইত্বমধ্যেই জেলার নন্দীগ্রাম উপজেলায় ইরি-বোরো ধানের চারা রোপণ কাজ শুরু হয়েছে পরোদমে। কথিত রয়েছে জেলার মধ্য নন্দীগ্রাম উপজেলার কৃষকরা মাট তৈরি ও ধান উৎপাদনের ক্ষেত্রে অনেকটাই যন্তশীল। তা ছাড়া এ উপজেলার আবাদি জমির উর্বরশক্তি অনেক বেশি রয়েছে। এলাকায় বছরে ৩ দফায় ধানের চাষাবাদ করা হয়ে থাকে। পাশাপাশি রবিশস্যরও চাষাবাদ করা হয়। যে কারণে এ উপজেলাকে শস্যভান্ডার হিসেবে গণ্য করা হয়। এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে নন্দীগ্রাম উপজেলায় ১৯ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। আবার এরচেয়ে বেশিও হতে পারে। এ উপজেলার কৃষকরা সোনালী স্বপ্ন নিয়ে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ শুরু করছে। উপজেলার খেংশহর গ্রামের কৃষক কামাল হোসেন জানিয়েছে, আমি ১৫ বিঘা জমিতে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ করছি। এরমধ্যে অর্ধেক জমিতে চারা রোপণ হয়েছে। গোপালপুর গ্রামের কৃষক জীবন কুমার জানিয়েছে, আমি ২০ বিঘা জমিতে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ করি। ইতোমধ্যেই ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ শুরু করেছি। বাঁশো গ্রামের কৃষক রুস্তম আলী জানিয়েছেন, আমি ১২ বিঘা জমিতে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ করি। ইতোমধ্যেই ধানের চারা রোপণ কাজ শুরু করেছি। ফসল উৎপাদনের কারিগর হিসেবে খ্যাত উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মশিদুল হক জানিয়েছে, এ উপজেলার কৃষকরা ধান উৎপাদনে অনেকটা পারদর্শি। তাই যথারীতিভাবে ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদ শুরু করেছে। এ মাসের মধ্যেই ইরি-বোরো ধানের চাষাবাদের জমিতে চারা রোপণ কাজ সম্পন্ন হবে। এবারো ইরি-বোরো ধানের বাম্পার ফলনের লক্ষ্য নিয়ে আমরা মাঠ পর্যায়ে কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছি। জেলার বিভিন্ন স্থানে এখনো পুরোদমে ধান চাষ শুরু না হলেও ইত্বমধ্যই মাঠ তৈরি কাজ সমপন্য করা হয়েছে । বিভিন্ন মাধ্যমে জানা গেছে, চলতি সপ্তাহ থেকেই বগুড়া সদর সহ ১২টি উপজেলায় চারা রোপণ শুরু করা হবে।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page

error: sorry please