11th, August, 2022, 8:52 am

রেডিও ধব্বনিতেই বিলীন জিন্নাতের ঠেলাগাড়ী

মীর আলাউদ্দিন : অবশেষে কাজী জহিরুল ইসলাম মানিকের রেডিও ধব্বনিতেই বিলীন  হয়ে গেল জিন্নাত আলী মাতবরের ঠেলাগাড়ী। ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচনে ৩ নং ওয়ার্ডে দলমত নির্বিশেষে সকলের জনপ্রিয় নেতা কাজী জহিরুল ইসলাম মানিকের রেডিও মার্কা আবারো বিপুল ভোটে জয় লাভ করেছে। ওই ওয়ার্ডে ঠেলাগাড়ী মার্কায় সরকার দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলেন জন বিছিন্ন নেতা জিন্নাত আলী মাতবর। ১লা ফেব্রুয়ারীর নির্বাচনে এলাকার অধিকাংশ জনগণ জিন্নাতকে বয়কট করে রেখে আধুনিক ৩ নং ওয়ার্ডের রুপকার কাজী জহিরুল ইসলাম মানিককেই জয়যুক্ত করিয়েছেন। কাজী জহিরুল ইসলাম মানিক বলেন এ জয় আমার নয় এ জয় আওয়ামীলীগের এ জয় আমার ওয়ার্ডের সকলের। আমি আমার ওয়ার্ডের সকল নাগরিক সেবা নিশ্চিত করার চেষ্টা করেছি, এলাকার উন্নয়নে সর্বোচ্চ ভুমিকা রেখেছি তারই প্রতিদান দিয়েছে আমার ওয়ার্ডের সকল মানুষ। জানা যায় ঠেলাগাড়ী মার্কার জিন্নাত আলী বেশ কয়েক বছর ধরে নিজ বাসার সাথে ফুটপাথ বন্ধ করে সিড়ি বানিয়ে দোতালায় মার্কেটের যাতায়তের রাস্তা বানিয়ে বেশ সমালোচনায় এসেছিলেন। ওই ওয়ার্ডে অবৈধ্য স্থাপনা উচ্ছেদের সময় জিন্নাত আলী মাতবরসহ সকলের অবৈধ্য স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়ে। নির্বাচনের আগ মুহুর্তে আবারো জিন্নাত আলী ফুটপাথ বন্ধ সিড়ি বানিয়ে মার্কেট চালু করে। জিন্নাতের ভাই জাহাঙ্গীর এলাকার যুবদলে নেতা হিসেবে পরিচিত। নির্বাচনের পূর্ব মুহুতেও চা দোকান, বাজার থেকে শুরু করে বাসা বাড়ি সবখানেই বির্তকিত জিন্নাতকে ঘিরে দিনভর চলছে আলোচনা সমালোনা। কথায় কথায় কোমর থেকে পিস্তল বের করে হুমকি দেওয়া জিন্নাত আলী মাতবর সরকার দলীয় মনোনয়ন পাওয়ায় পিস্তল আতংঙ্ক গ্রস্থ হয়ে পড়েছিল অনেকেই, বেশ হতাশ ছিল এলাকাবাসী সহ দলীয় নেতা কর্মীরা। শুধু হুমকিই নয় বিভিন্ন দোকান থেকে দামী দামী শাড়ী বা অনান্য জিনিসত্র জোর করে নেওয়ার অভিযোগও ছিল তার বিরুদ্ধে। জানা যায় জিন্নাত আলী মাতবর আগে জাতীয় পার্টি করতো, পরবর্তীতে আওয়ামীলীগে যোগদান করেন। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক বিভিন্ন আওয়ামীলীগ নেতারা বলেন জিন্নাত আলী সব সময়ই আওয়ামী বিরোধী অবস্থানে থাকতো। নানা অভিযোগে অভিযুক্ত জিন্নাত আলীর এসব বিষয় নিয়ে জানার জন্য গেলে তাকে তার বাসায় পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে কাউন্সিলর মানিক বলেন, সুষ্ঠ সন্দুর অবাধ নিরপেক্ষ নিব্র্চন হওয়ায় এলাকার মানুষ তাদের প্রার্থীকেই জয়যুক্ত করেছে। যারা এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে, এলাকার উন্নয়ন চাই না তাদের বয়কট করেছে এলাকার জনগণ। জিন্নাতের অবৈধ্য স্থাপনার কারণে ফুটপাথ দিয়ে মানুষ চলাচল বিঘ্নের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, দলীয় ক্ষমতার বলে কেই যদি নিজ বাসা বা মার্কেটের জন্য ফুটপাথ বন্ধ করে দেয় তবে সে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই সেটি করে। কিন্তু তারা ভুলে গেছে এখন জনগণ অনেক সচেতন, আওয়ামীলীগের সাইন র্বোডে আখের বাণিজ্য আর চলবে না।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page