2nd, December, 2022, 3:00 pm

রাস্তায় ঘুমানো মানুষের পাশে HELPERS OF CRISIS গ্র্রুপ

মোঃ সোলায়মান : রাস্তায় ঘুমানো মানুষের পাশে দাড়ানোর ব্রত নিয়ে আবির্ভূত হলো HELPERS OF CRISIS গ্র্রুপ। “হেলপারস অফ ক্রাইসিস” একটি সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। তাদের পথ চলার সময়টা এক সপ্তাহও অতিক্রম করেনি। এরই মধ্যে নিজেদের ব্যতীক্রমী কিছু কাজের জন্য ব্যাপক আলোচনায় চলে এসেছে এই সংগঠনটি। কোনরকম দান অনুদান ছাড়াই শুধুমাত্র নিজেদের ব্যাক্তিগত প্রচেষ্টায় ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় জীবানু নাশক স্প্রে ছিটানো,মাস্ক বিতরন,গ্লাভস বিতরন,সাবান বিতরন,হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ,ঢাকা শহরে রাস্তায় ঘুমানো মানুষদের খাবারের ব্যবস্থা করা ও জন সচেতনতা তৈরিতে অগ্রানী ভূমিকা রেখে চলেছে এ গ্র্রুপের সদস্যরা। এ ব্যাপারে সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক ও উদ্যোক্তা এস এম জাকারিয়া ইসলামে বলেন, যখন লকডাউনের ব্যাপারটা আলোচনায় আসে তখনই আমরা ভাবলাম লকডাউনে অধিকাংশ মানুষ গ্রামে চলে যাবে,যারা থাকবে তারাও প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হবে না। এসময় সবচেয়ে বেশী সংকটে থাকবে ঢাকার রাস্তায় ঘুমানো ছিন্নমূল মানুষ গুলো। ইচ্ছে থাকলেও সবার দায়িত্ব তো আমরা নিতে পারবো না কিন্তু যতটুকু সম্ভব ততটুকু তো করতে পারি। তাদের খাবারের ব্যাবস্থা করার লক্ষ্যটা মূল হিসেবে রেখে পাশাপাশি অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী মানুষের হাতে হাতে পৌঁছে দেয়ার উদ্দেশ্য সংগঠনের সৃষ্টি। শুধু এই সংকটই নয় ভবিষ্যতেও দেশের যে কোন সংকটে মানুষের পাশে দাড়ানোর দৃঢ় সংকল্প ব্যক্ত করছে আমাদের হেলপারস অফ ক্রাইসিস গ্র্রুপ”।  এস এম জাকারিয়া সমাজের বিত্তবানদের অসহায় মানুষের পাশে এসে দাড়ানোর উদাত্ত আহবান জানান। সংগঠনের আরেকজন অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা মোঃ রাশেদ বলেন, দেশপ্রেম বলতে আপনাকে দেশের জন্য অনেক বড় কিছু করতে হবে ব্যাপারটা কিন্তু এমন নয়, আপনার পাশের একজন মানুষের পাশে দাড়ানোও দেশপ্রেম। লকডাউনের দিনগুলোতে আপনি সবার কাছে যেতে পারবেন না, সবাইকে একজায়গায় করতে পারবেন না। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যাবহার করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের স্বেচ্ছাসেবী মনস্ক মানুষ গুলোকে আলাদা আলাদা ভাবে জনকল্যাণমুখী কাজ গুলো করার জন্য উৎসাহিত করাতে পারবেন। আমরা সেটাই করছি”। হেলপারস অফ ক্রাইসিস সুনির্দিষ্ট কিছু মানবিক লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।  সচেতন মহল মনে করেন এমন কিছু উদ্যমী তরুনের জন্যেই আগামীর বাংলাদেশ কখনোই কোন দূর্যোগে দুর্ভিক্ষের মুখে পড়বে না।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page

error: sorry please