15th, August, 2022, 1:45 am

মামলার পরেই আসামী গায়েব খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

মীর আলাউদ্দিন : রাজধানী মিরপুরের বাউনিয়াবাঁধ এলাকার কিশোর গ্যাং এর সক্রিয় সদস্য রাকিব ও তার বাহিনীর সদস্যরা বেড়িবাঁধ সংলগ্ন নুরুল ইসলামের বাড়িতে আগুন লাগিয়ে বেমালুম গায়েব হয়ে গেছে। মামলার পরে পুলিশ শত চেষ্টা করেও আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হচ্ছে না। গত ২৬ শে জুন বেড়িবাধ সংলগ্ন বাউনিয়াবাঁধ সেকশন ১১, লাইন ১৯ এর ১২ নং বাসায় এঘটনাটি ঘটে। জানা যায় এর আগে রাকিব ওই বাসার ছাদে আতশবাজি ফোটানোর কারণে নুরুল ইসলামের মেয়ে নুরুন নাহার রাকিবকে বকা দেয়। সেই সময় রাকিব নুরুন নাহার ও তার বাচ্চাকেসহ পুরো বাসায় আগুনে পুড়িয়ে দেবার হুমকি দেয়। এ বিষয়ে নুরুন নাহার বলেন, হুমকি মোতাবেক রাকিব আমাদের বাসায় কেরোসিন ও পেট্রোল দিয়ে আগুন লাগায়। ঘটনার দিন বিকেলে আমি আমার বাচ্চাকে নিয়ে সাড়ে চারটার দিকে পাশের এলাকা পলাশ নগর গিয়েছিলাম। পরে আমাদের বাসার ভাড়াটিয়া পলাশ আমাকে ফোন করে জানায় আমাদের বাসায় আগুন লেগেছে। আমি দ্রুত বাসার সামেনে এসে দেখি অনেক আগুন জ্বলছে সবাই নেভানোর চেষ্টা করছে। তারপর আমার কাছ থেকে চাবি নিয়ে গেইট খুলে আগুন নিভায়। তিনি আরো বলেন, আমার খালা দেখেছে রাকিব আর সারোয়ারকে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যেতে।

নুরুন নাহারের বাবা নুরুল ইসলাম বলেন, এর আগে ওই রাকিব সবার সামনে আমাদের সবাইকে আগুনে পুড়িয়ে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছিল। ঘটনার দিন আমাদের বাসায় রাকিব ও সরোয়ারকে একাধিক মানুষ আগুন লাগিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যেতে দেখেছিল। আগুন নেভার পরে পুলিশ এসেছিল সব ভিডিও করে নিয়ে গেছে। যেসব বোতলে করে কেরোসিন এবং পেট্রোল ছুড়ে বাসার ভিতরে নিক্ষেপ করেছিল তাও আলামত হিসেবে পুলিশ নিয়ে গেছে। পরে আমি থানায় যেয়ে মামলা করি কিন্তু এখনো পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকতা অংকুশ কুমার দাস বলেন, মামলার আসামীকে এখনো গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

জানা যায় রাকিব ও তার বাহিনী এলাকায় ত্রাসের সৃষ্টি করে বেড়ায়। এর আগে রাকিব ও তার বাহিনীরা মিলে একটি ছেলেকে কুপিয়ে জখম করে যেটি স্থানীয়ভাবে মাদ্রাসায় মিমাংসা হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, আমরা মাস ছয়েক আগে খাজাবাবার ওরশ উপলক্ষে অসহায় দরিদ্রদের জন্য রান্না করেছিলাম সেখানে রাকিব এসে খাবার লুট করতে চেয়েছিল কিন্তু এলাকাবাসীর তোপের মুখে পারে নাই। একাধিক বাসিন্দারা বলছেন অতি অল্প বয়সেই রাকিব বেশ বেপরোয়া দেশীয় অস্ত্রের মহড়া প্রদশনও করে সন্ধ্যার পরে। অচিরেই তার লাগাম টেনে না ধরলে ভবিষ্যতে এই রাকিবই হয়ে উঠতে পারে বড় ধরনের সন্ত্রাসী।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page