28th, June, 2022, 1:46 pm

পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়ার ৫ ক্ষতি

ডেস্ক সংবাদ : ঘুমের অসুবিধা হলে মন ও শরীরের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ে। এমনকি নিয়মিত পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম না হলে দীর্ঘমেয়াদি স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি হয়। পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম না হওয়ার কিছু ক্ষতির বিষয়ে জানিয়েছে স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট টপ টেন হোম রেমেডি। আসুন জানি সেগুলো।

১. মস্তিষ্কের ওপর প্রভাব ফেলে : রাতে ভালোভাবে ঘুম না হলে পরের দিন ক্লান্তি ভাব হয় এবং মনোযোগের অভাব ঘটে। পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম না হওয়ায় মস্তিষ্কের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। তাই মস্তিষ্ক ভালো রাখতে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমান।

২. হৃৎপিণ্ডের ক্ষতি : পর্যাপ্ত ঘুম ও বিশ্রাম হৃৎপিণ্ডের স্বাস্থ্যকে ভালো রাখার জন্য জরুরি। ঘুমের অসুবিধা হৃদরোগ তৈরি করে। গবেষণায় বলা হয়, ঘুমের সমস্যা রক্তচাপ বাড়ায় এবং স্নায়ুর কার্যক্রম কমিয়ে দেয়।

৩. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমায় : দীর্ঘদিন ধরে পর্যাপ্ত ঘুম রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। ঠাণ্ডা, ফ্লু ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে পর্যাপ্ত পরিমাণ না ঘুমালে।

৪. বিষণ্ণতা : ঘুমের সমস্যার সঙ্গে বিষণ্ণতার সম্পর্ক রয়েছে। গবেষণায় বলা হয়, বিষণ্ণতায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের অনেক সময় ছয় ঘণ্টারও কম ঘুম হয়। আপনি বিষণ্ণতায় ভুগলে এবং ঘুমের অসুবিধা নিয়মিত হতে থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

৫. ত্বকের ক্ষতি : মাত্র একটি রাত ঠিকঠাকমতো না ঘুমালে চোখ ফোলা ভাব, চোখের নিচে কালো দাগ, ত্বক মলিন হয়ে যাওয়ার সমস্যা দেখা যায়। তাহলে একটু ভাবুন, মাত্র এক রাত ঠিকমতো না ঘুমালে কতটা ক্ষতি হয়! ঘুম কম হলে এটি সরাসরি ত্বকের নমনীয়তার ওপর প্রভাব ফেলে।

অনেক সময় মানসিক চাপের কারণে ঘুম কম হয়। মানসিক চাপের সময় করটিসল হরমোন বের হয়। এই হরমোন ত্বকের প্রোটিনকে ভেঙে ফেলে, এতে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page