28th, May, 2022, 10:02 am

কঙ্কাল চুরি হওয়ার পর স্থানীয়, উপজেলা ও জেলা প্রশাসনের বর্মকর্তারা কবরস্থান পরিদর্শন করেন।

কবর থেকে ১৪ কঙ্কাল চুরি

পঞ্চগড় প্রতিনিধি : এক দিনের ব্যবধানে পঞ্চগড়ের বোদায় কবর থেকে আরও ১৪টি কঙ্কাল চুরি হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে কৈইকিল্লাহ দিঘী কবরস্থান থেকে কঙ্কালগুলো চুরি হয়। এর আগে গত সোমবার একই কবরস্থান থেকে ১৩টি কঙ্কাল চুরি হয় বলে জানা গেছে। কৈইকিল্লাহ দিঘী কবরস্থানে বোদা উপজেলার সাকোয়া ও চন্দনবাড়ি দুইটি ইউনিয়নের মৃত ব্যক্তিদের দাফন করা হয়।

গতকাল কঙ্কালগুলো চুরি হওয়ার পর আজ বুধবার দুপুরে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত সম্রাট, বোদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সোলেমান আলী. বোদা থানার ওসি আবু সাঈদ চেীধুরী ও চন্দনবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম প্রধান ওই কবরস্থান পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনের পর জেলা প্রশাসক রাতে প্রতিটি কবরস্থানে পাহারার ব্যবস্থা নিতে চেয়ারম্যানদের নির্দেশ দেন। এ সময় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কঙ্কাল চোর চক্রটি ধরতে স্থানীয়দের সহায়তা চেয়ে পুরস্কার ঘোষণা করেন। জড়িত চক্রটির সন্ধান দিতে পারলে তিনি ৫০ হাজার টাকা পুরস্কারের ঘোষণা দেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কৈইকিল্লাহ দিঘী কবরস্থানে কঙ্কাল চুরি হওয়ায় মানুষ প্রতিদিন সকালে কবরস্থানে এসে স্বজনদের কবরগুলো ঠিক আছে কি না তা দেখে যান। আজ বুধবার সকালে স্থানীয় কয়েকজন কবরস্থান এলাকায় গেলে কয়েকটি কবর খনন করা অবস্থায় দেখতে পেয়ে তারা স্থানীয় আরও কিছু লোকজনকে খবর দেন। পরে তারা কবরস্থান ঘুরে ১৪টি কবর খনন করা দেখতে পান। স্থানীয়দের ধারনা, দুর্বৃত্তরা কবর থেকে কঙ্কাল চুরি করতেই এসব কবর খনন করেছে। গেল ৮ মাস থেকে ২ বছরে যাদের মৃত্যু হয়েছে এমন ব্যক্তিদের কবর থেকে কঙ্কাল চুরি হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

স্থানীয়রা আরও জানায়, গত কয়েক দিন ধরে ওই কবরস্থানের এক পাশে নাম পরিচয়হীন এক মানুষ পাগলবেশে ছিলেন। আজ সকালে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে তিনি তার পরনের দুইটি কম্বল ফেলে পালিয়ে যান। এ বিষয়ে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করা হচ্ছে।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page