2nd, December, 2022, 2:54 pm

এমপির নির্দেশে স্বেচ্ছায় ধান কাটার টিম গঠন

দিনাজপুর ফুলবাড়ী প্রতিনিধি : বোরো ধানের পাকায় ফসলের মাঠ এখন সোনালী কালারে রুপান্তিত। কিন্তু হাঁসি ফোটেনি অসহায় কৃষকের মুখে।মরণ ঘাতি করোনার করনে ধান কাটার শ্রমিক সংকট আথবা অর্থের অভাবে ধান কেটে ঘরে তুলতে পারছেন না অসহায় কৃষক। তাই কৃষকের একটি ফোনেই সাড়া দিয়ে ফুলবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ,স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুব লীগ ও ছাত্র লীগের নেতাকর্মীরা হাজির হচ্ছেন অসহায় কৃষকের জমিতে।এমনটি চিত্র দেখা গেছে, দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায়। দিনাজপুর ৫ অসনের সংসদ সদস্য ফুলবাড়ী-পার্বতীপুর মাটি ও মানুষের নেতা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক মন্ত্রী দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যডভোকেট মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি’র দিকনির্দেশনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মুশফিকুর রহমান বাবুল এর তত্ত্বাবধানে, ফুলবাড়ী উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জু রায় চৌধুরীর সার্বিক ব্যবস্থাপনায় অসহায় কৃষকদের বাড়ী বাড়ী গিয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে ক্ষেতের ধান কেটে মাড়াই করে কৃষকের গোলায় তুলে দিচ্ছেন তারা।
উপজেলা ছাত্রলীগের ৩০ জন, আওয়ামী যুবলীগের ২০ জন, এবং স্বেচ্ছাসেবক লীগের ১০ জনের সমন্বয়ে ৬০ জনের ধান কাটা-মাড়াইয়ের জন্য একটি স্বেচ্ছাশ্রম টিম গঠন করা হয়েছে। ১২ মে মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় উপজেলার এলুয়ারী ইউনিয়নের দামদরপুর গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কাটাই-মাড়াইয়ের দলটি দুইভাগে বিভক্ত হয়ে গ্রামের জহুরুল ইসলামের এক বিঘা জমির ধান কাটাই-মাড়াইসহ গোলায় ধান তুলে দিচ্ছেন। কৃষক জহুরুল ইসলাম বলেন, জমির ধান পেকে যাওয়ায় দুশ্চিন্তায় ছিলাম অর্থ সংকটের কারণে ধান কাটতে পারছিলাম না। হঠাৎ মনে পড়ে গত শুক্রবার (৮ মে) পার্শ্ববর্তী জোয়ার নামক গ্রামের স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কেটে দিয়েছিলেন ফুলবাড়ীর আওয়ামীলীগের লোকজন। তাৎক্ষণিকভাবে আমি ভাইস চেয়ারম্যানকে ফোন দিলে তিনি বলেন চিন্তার কারণ নাই। কাল পরশু ধান কেটে দেওয়া হবে। সত্যি সত্যি আজ ১২মে মঙ্গলবার জমিতে নেমে ধান কেটে খলায় নিয়ে মাড়াই মেশিনে দিয়ে মাড়াই করে বস্তায় ভর্তি করে বাড়ীতে পৌঁছে দিতে শুরু করেন আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। যেসব ছেলেরা লেখাপড়া নিয়ে ব্যস্ত থাকে তারা তো কোনদিন মাঠে কাজ করার কোন অভিজ্ঞতা নেই। কিন্তু অভিজ্ঞতা না থাকলেও তাদের ধান কাটাই-মাড়াইসহ বস্তা ভর্তি ধান গোলায় দিয়ে আসা পর্যন্ত সবকিছুই যেন এক অন্য রকম দৃশ্য। উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান বলেন, কৃষকের দুর্দিনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বসে থাকতে পারে না কারণ আমার বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করি। কৃষকের জন্য কিছু একটা করা প্রয়োজন এই চিন্তা চেতনা থেকে  ফুলবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুল ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জু রায় চৌধুরীর সাথে পরামর্শে করে ধান কাটার সিদ্ধান্ত নিয়ে মাঠে নেমেছে ছাত্রলী। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জু রায় চৌধুরী বলেন, এলাকার সংসদ সদস্যের দিকনির্দেশনায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুশফিকুর রহমান বাবুলের তত্বাবধানে একটি স্বেচ্ছাশ্রম কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ার টিম গঠন করা হয়েছে। কৃষকের ফোন পেলেই নেতাকর্মীদের নিয়ে ধান কেটে দেওয়া হচ্ছে। এ স্বেচ্ছাশ্রম অব্যাহত থাকবে। কোন কৃষকের-ই ধান জমিতে পরে নষ্ট হবে না।উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মুশফিকুর রহমান বাবুল বলেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি মহোদয়ের সার্বিক দিকনিদের্শনায় স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কাটাই-মাড়াই টিম গঠন করা হয়েছে। কৃষক ফোন পেলেই তার বাড়ীতে হাজির হয়ে মাঠের ধান কেটে মাড়াই করে গোলায় তুলে দেওয়া হবে।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page

error: sorry please