10th, May, 2021, 4:56 am

এবার পাইকগাছায় আমন ধানের বাম্পার ফলন

খুলনা প্রতিনিধি : খুলনার পাইকগাছায় আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ধান ও বিচুলীর (খড়) দাম বেশী থাকায় কৃষকরা খুশি। উপজেলায় পুরাদমে আমন ধান কর্তণ চলছে। তুলনামূলক উঁচু ক্ষেতের আমন ধান কর্তণ শেষ হয়েছে। তবে নিচু ও মৎস্য লিজ ঘেরে আমন ক্ষেতের ধান কাঁটা ও মাড়াই চলছে। বি আর ২৩ধানের কর্তণও শুরু হয়েছে। আগামী ১০/১৫ দিনের মধ্যে পুরা জমির ধান কাটা সম্পন্ন হবে বলে কৃষকরা জানিয়েছে। আবহাওয়া জনিত কারণ ও মৎস্য লিজ ঘের গুলোতে দেরিতে আমনের আবাদ করা হয়। সে জন্য আমন ধান কাঁটাও দেরিতে শুরু হয়। ধানের আশানারূপ দামে বিক্রি হচ্ছে। নতুন আমন ধান মন প্রতি ৮শ থেকে সাড়ে ৯শ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে ধানের থেকে বিচুলীর (গো খাদ্য) চাহিদা ও মূল্য বেশী থাকায় কৃষকরা লাভবান হচ্ছে। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানাযায়, চলতি মৌসুমে উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ১৭হাজার ২শত ২০হেক্টর জমিতে আমনের আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে হাইব্রিড ৫৭০হেক্টর, উফশী ১৫হাজার ৮শত ৫০হেক্টর ও স্থানীয় জাত ৮শ হেক্টর জমিতে আমনের চাষ হয়েছে। ইতোমধ্যে উঁচু ক্ষেত্রের ধান কাঁটা শেষ হয়েছে। মৎস্য লিজ ঘেরের ধান কাঁটা চলছে। প্রায় ৬৫ভাগ ক্ষেতের ধান কাঁটা সম্পন্ন হয়েছে। হেক্টর প্রতি ফলন হাইব্রীড ৭.৬মেট্রিকটন, উফশী ৫.৫মেট্রিকটন ও স্থানীয় জাতের ৩মেট্রিকটন হারে ফলন পাওয়া যাচ্ছে। চলতি বর্ষা মৌসুমে প্রচুর বৃষ্টি হওয়ায় নিচু এলাকার লবণের মাত্রা কমে যাওয়ায় ফলন আশানারূপ হয়েছে। উপজেলার গদাইপুর ইউনিয়নের পুরাইকাটী কৃষক ফারুক হোসেন জানান, তার ৫বিঘা জমিতে গত বারের তুলনায় এ বছর ফলন ভালো হয়েছে। তোকিয়ার কৃষক শফিকুল জানান, ধানের দাম ভালো ও অধিক দামে বিচুলী (খড়) বিক্রি হওয়ায় সে খুশি। এ প্রসঙ্গে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জানান, চলতি মৌসুমে আমনের ফলন ভাল হয়েছে। প্রচুর বৃষ্টিতে লবণাক্ত মাটি পরিশোধিত হওয়ায় আমনের ফলন ভাল হয়েছে। কৃষকরা ধানের দাম ভালো ও বিচুলীতে অধিক দাম পাওয়ায় আমন ধান চাষে তাদের আগ্রহ বেড়েছে।

Please share this news ..
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page