15th, August, 2022, 4:21 am

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে রেডিও মার্কা

মীর আলাউদ্দিন: আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ঢাকা উত্তর সিটির ৩নং ওয়ার্ডে আয়োজিত উঠান বৈঠকে স্থানীয় বাসিন্দা, দলীয় নেতাকর্মী ও বিভিন্ন জনসাধারনে উপস্থিতিতে টইটুম্বর হয়ে যায়। সকাল ১১ টায় সেকশন ১০, ব্লক বি, ১৪ নং লাইনে আয়োজিত উঠান বৈঠকে রেডিও ধব্বনির জয়জয়কার করে উপস্থিত সকলেই। উঠান বৈঠকে উপস্থিত সকলেই সাবেক কাউন্সিলর কাজী জহিরুল ইসলাম মানিকের রেডিও মার্কায় ভোট চেয়ে বিভিন্ন বক্তব্য প্রদান করেন।
খাইরুল কবির চৌধুরী বলেন, আমি ১৯৭২ সালে মুজিব আদর্শ সৈনিক ছিলাম। আজ মুজি বর্ষ চলছে। এই এলকায় সেই তখন থেকে দেখে আসছি কে কেমন ছিল কে মুজিব আদর্শের ছিল। কারা এই এলাকায় আওয়ামীলীগের ছিল। আমি দেখেছি এই মানিককে সেই থেকেই দেখছি মুজিব আদর্শে চলতে। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগে হাইব্রীড রুখতে আবারো মানিকের রেডিও মার্কায় ভোট দিবেন।
এসপি শাহজাহান বলেন, আমার পুত্রসম মানিকের জন্য আজ এসেছি। আমার এলাকায় আরেকজন মনোনয়ন নিয়েছে কিন্তু আমি বলতে চাই আমাদের মানিক এতো অবাধ্য সন্তান না উপরের সিগনাল পেয়েই মানিক নির্বাচনে নেমেছে। আপনারা এলাকার এমন লোককে নির্বাচনে বেছে নিবেন যে এলাকার উন্নয়নে পাশে থাকে। আমার মানিকের সে গুন আছে তাই তাকে ভোট দিয়ে জয় যুক্ত করবেন।
মহিলা আওয়ামী নেত্রী নুসরাত জাহান বলেন, আজকের ৩নং ওয়ার্ডে কোথায় কোথায় উন্নয়ন হয়েছে তা এলাকাবাসী দেখেছে। মানিক ভাই ৯৮ ভাগ কাজ করেছে বাকি দুই ভাগ কাজ সম্পন্ন করার জন্য আবারো মানিক ভাইকে নির্বাচনে জয়যুক্ত করে এলাকার উন্নয়নে অংশ গ্রহন করবেন।
৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা পারভেজ বলেন, আমাদের এলাকার সকল উন্নয়ন কাজে আমাদের বড় ভাই কাজী জহিরুল ইসলাম মানিক ভাইকে পেয়েছি। আমাদের ছাত্রলীগের কল সুখে দুঃখে আমরা তাকে পাশে পেয়েছি। আমরা ৩নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ কাজী জহিরুল ইসলাম মানিক ভাইয়ের পাশে আছি। কোন কুচক্রী মহল মানিক ভাইয়ের উন্নয়ন কর্মকান্ডকে থামাতে পারবে না। তার উন্নয়ন কর্মকান্ডের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আবারো রেডিও মার্কায় ভোট দিবেন।
ছাত্রলীগ নেতা সুমন বলেন, কেন কাজী জহিরুল ইসলামকে ভোট দিবেন? আমার বোন নিরাপদে স্কুলে যায় কোন ইভাটজার যেন আমার বোনকে বিরক্ত করতে না পাওে সেজন্য রেডিও মার্কায় ভোট দিবেন। আমাদের এলাকার সন্ত্রাসী কার্যক্রম বন্ধের জন্য মানিক ভাইকে রেডিও মার্কায় ভোট দিবেন। মাদক বন্ধের জন্য মানিক ভাইকে ভোট দিবেন।
এ্যডভোকেট সৈয়দ নজরুল ইসলাম বলেন, এই নির্বাচনে সবাই রেডিও মার্কায় ভোট দিবেন। ২০০৩ সালে বি এন পি এর আমালে বিভিন্ন মামলায় জর্জরিত তখন আমার একটা মামলা পল্লবী থানায় নেয় নাই থানা থেকে আমাকে বের করে দিয়েছে তখন আমি এই মানিক ভাইকে জানানোর পরে থানার ওসি গাড়ী পাঠিয়ে আমাকে নিয়ে যেয়ে মামলা দায়ের করেন। কয়েক মাস আগে আমার বাসার সামনে ময়লা দেখে রাত দুটোর সময় আমি মানিক ভাইকে জানায় পরদিন সকালে দেখি আমার বাসার সামনে দুটো গাড়ী হাজির ময়লা তুলে নিতে। তাই আমি বলবো এই নির্বাচনে আপনারা এলাকার উন্নয়নের জন্য মানিক ভাইকে ভোট দিবেন।
৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী নেতা হাজ্বী আমান বলেন, সব এলাকাবাসীই চায় তার এলাকায় একটা ভালো প্রার্থী চায়। আমাদের এলাকার উন্নয়নের জন্য মানিক ভাইয়ের বিকল্প নেই তাই জয়ের মালা তার গলায় আসুক। গত ৫ বছরে তার সকল উন্নয়নের কর্মকান্ডই তার বিজয় সুনিশ্চিত করবে।
আওয়ামী নেতা আব্দুল হামিদ বলেন, আমরা বিগত দিনে যত গুলো কাউন্সিলর পেয়েছি তাদের মধ্যে আমাদের মানিক সেরা। এলাকার ছোট বড় সকলের সাথে তার আন্তরিকতা বা এই এলাকায় সকল উন্নয়ন করেছে মানিক। এই এলাকায় যারা নির্বাচনে দাড়িয়েছে তারাই মানিকের উন্নয়ন কাজকে বাধা গ্রস্থ করতে এক বছরের স্ট্রে অর্ডার করে মানিককে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করেছে। তাই আবারো মানিককে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করে তাদের দেখিয়ে দিবো।
৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী নেতা আনোয়ার বলেন, অনেকে কাউন্সিলরের সামনে যেতে পারে না অথচ আমাদের এলাকায় মানিক ভাইয়ের কাছে একজন সাধারণ মানুষও যেতে পারে অনায়াসে তাই আপনারা তাকে নির্বাচিত করে আমাদের পাশে থাকার সুযোগ দিবেন।

জাতীয় পার্টির কামরুল হুদা কাজল বলেন,  মানিক কাউন্সিলর হওয়ার পরে এই এলাকায় যে উন্নয়ন হয়েছে তা সবাই জানে। আমরা ভোটের দিন সকলে ভোট কেন্দ্র যাবো এবং রেডিও মার্কায় ভোট দিবো।
পল্লবী থানার মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী শানু বলেন, আপনারা চোখ কান খোলা রাখবেন আমাদের দেশে আজও কিছু রাজাকারদের বংশ রয়েছে তারা আমাদের উন্নয়ন করতে বাধাগ্রস্থ করছে। আপনারা তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হবেন। আজ যে রোডে আমরা এই উঠান বৈঠক হচ্ছে এইি রাস্তাটিও মানিক ভাইয়ের করা। আজ আমাদের এলাকায় মা বোনেরা নিরাপদে চলাফেরা করছে তার অবদানও মানিক ভাইয়ের। আমাদের এলাকার অনেক ছেলে মেওয়েরা পড়াশুনা করতে পারেনা অর্থের অভাবে আমরা দেখেছি মানিক ভাই নিজ অর্থায়নে তাদের পড়াশুনার ব্যবস্থা করেছে, পানির সমস্যা সমাধান করেছে সকল সমস্যার সমাধানই পেয়েছি এবারোর তার হাতকে শক্তিশালী করবো তাই আমরা আবারো চাই মানিক ভাইকে।
আতাউর রহমান খান বলেন, আজকে আমাদের এই উঠান বৈঠকে আমরা উপস্থিত হয়েছি কিভাবে আমরা মানিককে আবারো নির্বাচিত করতে পারি সে বিষয়ে কথা বলতে। আমি শুনেছি অনেকে মানিকের চরিত্র রিয়ে কথা বলেছেন আমি বলতে চাই আপনারা চরিত্র নিয়ে কথা বলবেন না আমরা এলাকাবাসী জানি কারা কেমন কার্দে চরিত্র কেমন। আজ এই রাস্তা করার জন্য আপনারা বাধা দিয়েছিলেন। চরিত্র যদি সামনে আনা হয় তবে মানিকের চরিত্রই সেরা হবে। আপনারা বারাবার চেষ্টা করেছেন মানিকের সকল উন্নয়ন কাজে বাধা দিতে। আপনার নির্বাচনে দাড়িয়েছেন ভোট চান সমস্যা নাই কিন্তু চরিত্র নিয়ে কথা তুলেন না। এই মানিকের কাছে উপকার পায় নাই এরকম ইতিহাস নাই। সুতরাং ভোট চান কিন্তু মানিকের বিপক্ষে চক্রান্ত কইরেন না। তিনি মানিকের পক্ষে ভোট চেয়ে বক্তব্য শেষ করেন।
কাজী জহিরুল ইসলাম মানিক বলেন, আমি ৩নং ওয়ার্ডে একক প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন কিনেছিলাম। হঠাৎ করে ২৮ শে নভেম্বর দেখি আরেকজনের নামে মনোনয়ন এসেছে। আমরা দল যাকে মনোনয়ন দিয়েছে তার পক্ষে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কিন্তু আমার এলাকার ৫০ ভাগ নেতা কর্মী আমাকে নির্বাচন করতে বলেছে। আমার এলাকার স্থানীয় এমপি আমার নেতা ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা বলেন নির্বাচন করতে। আমার সাথে দলের উপর মহলের সাথে কথা হয়েছে আমি তাদেরকে বলেছি আমি নমিনেশন তুলে নিবো কিনা। দল থেকে আমাকে নির্বাচন করতে বলা হয়েছে। দল থেকে আরো জানানো হয়েছে আমাদের ৩নং ওয়ার্ড উম্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। সাবেক কাউন্সিলর আরো বলেন আজকের এই উঠান বৈঠকে কাউকে সেনপাড়া বা লালমাটি থেকে ভাড়া আনা হয় নাই। এলাকার মানুষ জানে কাদের কাছে দলের পতাকা নিরাপদ আজ তারা আমার এখানে আছে। এই নির্বাচনে আপনারা মেয়র পদে নৌকা প্রতীকে একটি ভোট দিবেন, আমার রেডিও মার্কায় একটি ভোট দিবেন ও আমার এলাকায় সংরক্ষিত মহিলা আসনে বই মার্কায় সালমা কামালকে একটি ভোট দিবেন বলে উঠান বৈঠক শেষ করেন।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page