15th, August, 2022, 4:42 am

অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে গাছ কেটে আত্মসাতের অভিযোগ

রংপুর প্রতিনিধি : রংপুরের পীরগাছায় দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মূল্যবান গাছ কেটে আত্মসাত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দুটি প্রতিষ্ঠানের গাছের আনুমানিক মূল্য ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা। প্রতিষ্ঠান দুটি হচ্ছে উপজেলার সৈয়দপুর কারামতিয়া দ্বি-মুখী ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসা এবং চৌধুরাণী ফাতেহিয়া ফাজিল মাদ্রাসা। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট পৃথক পৃথক অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে চৌধুরাণী ফাতেহিয়া ফাজিল মাদ্রাসার গাছ কাঁটার অভিযোগ তদন্তে প্রমানিত হলেও অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। অভিযোগে জানা গেছে, করোনা ভাইরাসে বন্ধ থাকা চৌধুরাণী ফাতেহিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ৪৩ শতাংশ জমি ২০০৫ সালের ১০ ফেব্রুয়ারী ২৫ বছরের জন্য ম্যানেজিং কমিটি ষ্ট্যাম্প ও রেজুলেশনের মাধ্যমে লীজ দেন অফিস পিয়ন নুরুল আমিনকে। পরে নুরুল আমিন ওই জমিকে বসতবাড়ি ও গাছের বাগান করে বসবাস করছিলো। নুরুল আমিন মারা যাওয়ার পর থেকে বর্তমান মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমান ওই জমি থেকে নুরুল আমিনের স্ত্রী-সন্তানকে উচ্ছেদের চেষ্টা চালান। গত ৪ জুন অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমানের নিদের্শে প্রতিবেশি আবদুর রাজ্জাক জোরপুর্বক ওই জমির প্রায় ৩৭টি বিভিন্ন প্রজাতির গাছ, ২০টি বাঁশ কেটে নিয়ে যান এবং জমিতে গর্ত করে যাতায়াতের রাস্তা তৈরি করেন। যার আনুমানিক মূল্য ৩০ হাজার টাকা। এ ব্যাপারে মৃত নুরুল আমিনের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পরে অ্যাকাডেমিক সুপারভাইজার ফারুকুজ্জামান ডাকুয়া বিষয়টি তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পান। এ বিষয়ে অধ্যক্ষ মোখলেছুর রহমান বলেন, জমিটি লীজ প্রদান করা হয়নি। গাছ নয়, বাঁশ কেটে মাদ্রাসার কাজ করা হয়েছে। অপরদিকে সৈয়দপুর কারামতিয়া দ্বি-মুখী ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোছাঃ কোহিনুর বেগমের নির্দেশে মাদ্রাসার কম্পিউটার শিক্ষক রেফাকাতুল্লাহ গত ৭ জুন মাদ্রাসার জমিতে রোপনকৃত ১৭টি মেহগনি ও ইউক্যালেপ্টর গাছ (যার আনুমানিক মুল্য ২ লাখ ২০ হাজার টাকা) কেটে স্থানীয় ছ-মিলে রেখে বিক্রি করে দেন। এ বিষয়ে বুধবার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ করেছে মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির অভিভাবক ও টি আর সদস্যরা।
এ বিষয়ে মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কোহিনুর বেগম বলেন, ঝড়ে পড়া ছোট কয়েকটি গাছ কেটে অন্যত্র রাখা হয়েছে। বিক্রি করা হয়নি। ১৭ জুন মাদ্রাসার মিটিংয়ে এ বিষয়ে আলোচনা হবে। এ ব্যাপারে ওই মাদ্রাসার সভাপতি আবদুল হাকিম সরদার বলেন, আগামী মিটিংয়ে এ নিয়ে আলোচনা করা হবে।

Comments are closed.

     More News Of This Category

follow us on facebook page